আন্তর্জাতিক
দীর্ঘদিন ধরে আফগানিস্তানের সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে আজ বিনা লড়াইয়ে যখন কাবুলের অভিমুখে রওনা দিয়েছিল আফগানিস্তানের তালিবান মিলিয়েশিয়া যোদ্ধারা,

ঠিক তখনই আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট ভবন থেকে শান্তি আলোচনার মাধ্যমে ক্ষমতা ছাড়ার জন্য আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট জনাব আশরাফ গনির তরফ থেকে তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডার ইন চিফ জনাব মোল্লা আবদুল গণি কে আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট ভবন এ ডাকেন ক্ষমতা হস্তান্তর করতে ।

এই শান্তিপূর্ণ বৈঠকে ডাকা হয় তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডার সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ নেতা সহ আমেরিকার নেতৃত্বাধীন ন্যাটো জোটের প্রধানদের এবং আফগানিস্তানের অবস্থিত পাকিস্তান ও সৌদিআরব এবং কাতার সহ তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডারদের সাথে বিগত কয়েক বছর ধরে শান্তি আলোচনা কারী দেশের প্রধানদের।

গত কয়েক মাস ধরে যখন প্রবলভাবে তালিবান মিলিয়েশিয়ার যোদ্ধারা আফগানিস্তানের সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করে তখন থেকেই পিছনে হঠতে শুরু করে আফগানিস্তানের সামরিক বাহিনীর সদস্যরা।

এর পর একের পর এক অথনৈতিক সীমান্ত এলাকা দখল করে নেয়। এবং হেলমান্দ প্রদেশ ও মাজার ই শরিফ এবং কান্দাহার ও জালালাবাদ এবং কান্দাহার ও কুন্দুজ এবং হিরট এবং শের খান সহ বহু গুরুত্বপূর্ণ এলাকা দখল করে নেয়।

যায় ফলে আফগানিস্তানের সরকারের পক্ষ থেকে অথনৈতিক ভাবে ভেঙে পড়ে। ভারত ও আফগানিস্তানের মৈত্রী বাধ সালমা গতকাল দখল করে নেয়। জালালাবাদ শহর থেকে শুরু করে কান্দাহার পযন্ত যখন তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডারদের কনভয় কাবুলের অভিমুখে যাত্রা শুরু করে তখন বোঝা যায় যে কাবুলের পত্তন সময়ের জন্য অপেক্ষা।

তবে আফগানিস্তানের সামরিক বাহিনীর সদস্যরা তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডারদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারেনি এমনটা নয়। কিন্তু তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডারদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার মানষিকতা শেষ পর্যন্ত ছিল না।

আকাশ থেকে গোলাগুলি নিক্ষেপ করে ও তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডারদের থামানো যায়নি। সব প্রতিরোধ ভেঙে যায় তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডারদের মানষিকতার দৃঢ়তার কাছে। এর মধ্যে আমেরিকান সেনাবাহিনীর সদস্যরা দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়। এবং আফগানিস্তানের তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডারদের সাহায্য কারী পাকিস্তান ও চীনের সাথে যৌথভাবে বৈঠক করেন তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডাররা।

তাদের সাহায্য ও কাতার ও আমেরিকার নেতৃত্বাধীন জোট ন্যাটোর সাহায্য নিয়ে আজ ক্ষমতা দখল করে নিল আফগানিস্তানের তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডাররা। আজ আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে শান্তি বৈঠকে ক্ষমতা ছাড়তে চলেছে আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট জনাব আশরাফ গনি। তবে আগামী দিনে কেমন করে দেশ চালাবে তালিবান মিলিয়েশিয়ার কমান্ডাররা তা দেখার জন্য অপেক্ষা করতে হবে।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *