ভারত থেকে নিউজ দাতা মনোয়ার ইমাম।

যুদ্ধবিদ্ধস্ত আফগানিস্তানের সামনাসামনি লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে আফগানিস্তানের সামরিক বাহিনীর সদস্যরা এবং তালিবান মিলিয়েশিয়ার সদস্যরা। কাবুলে পথে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের ফলে বহু সংখ্যক মানুষ এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হচ্ছে।

আফগানিস্তানের আশি ভাগ যায়গা ইতিমধ্যেই দখল করে নিয়েছে তালিবান মিলিয়েশিয়ার সদস্যরা। ইতিমধ্যেই ভারতের নাগরিকদের আফগানিস্তান থেকে সরিয়ে নিয়ে চলে আসতে শুরু করে দিয়েছে। ভারতের কান্দাহার ও মাজার ই শরিফ এর দূতাবাস বন্ধ করে দিয়েছে। সেখান থেকে কূটনৈতিকদের সরিয়ে নিয়ে আসছে। এবং যেকোন সময় ভারতের আফগানিস্তানের কাবুলে অবস্থিত ভারতের দূতাবাস বন্ধ করে দিতে পারে।

তাই ভারতের নাগরিকদের আফগানিস্তানে যাওয়ার ভিসা আবেদন বন্ধ করে দিয়েছে। আফগানিস্তানের রাস্ট্রপতি আবদুল ঘানি ভারতের কাছে সামরিক সাহায্য চেয়েছে। কিন্তু ভারত এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো সাহায্যোর কথা বলেনি। ইতিমধ্যে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরা পাক আফগানিস্তানের সীমান্তে সামরিক বাহিনী বাড়িয়ে দিয়েছে। এবং সীমান্ত সীল করে দিয়েছে। আফগানিস্তান সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে তালিবান মিলিয়েশিয়ার সদস্যদের সামরিক সাহায্য দিয়ে সাহায্য করছে পাকিস্তান।

অন্য দিকে রাশিয়া তাজিকিস্তান সীমান্ত এলাকায় সামরিক বাহিনী মোতায়েন করে দিয়েছে। ইরান ও তাজিকিস্তান সীমান্ত এলাকায় সামরিক বাহিনী কড়া নজরদারি চালিয়ে যাচ্ছে সেদেশের সেনাবাহিনীর সদস্যরা। আফগানিস্তানের সামরিক বাহিনীর সদস্যরা আকাশ পথে বিমান হানা দিয়ে ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করছে তালিবান মিলিয়েশিয়ার সদস্যদের। কিন্তু পাল্টা রকেট আক্রমণ শুরু করে দিয়েছে এবং ভারী মেশিনগানের গোলাগুলির আওয়াজ শোনা যাচ্ছে বহু দূর পর্যন্ত। কাবুল দখলের লড়াইয়ে কে জিতবে কে হারবে সেটি দেখার জন্য অপেক্ষা করতে হবে আরো কিছু দিন।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *