ভারত থেকে নিউজ দাতা মনোয়ার ইমাম।

ভারতের উত্তর প্রদেশের এক মুসলিম যুবক নাম মহম্মদ ফরহান আলী কলেস্টেবল উত্তর প্রদেশ, তিনি অযোধ্যার একটি রাস্তায় ডিউটি করছিলেন।

তখন উত্তর প্রদেশের পুলিশের এক পদস্থ অফিসার ঔ রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন। তিনি দেখতে পান যে মহম্মদ ফরহান আলী দাড়ি রাখা অবস্থায় তিনি ডিউটি করছিলেন। তখন ঔ অফিসার ফরহান আলী কে দাড়ি কেটে ডিউটি আসতে বলেন।

তানার আদেশ কে অমান্য করে ডিউটি করছিলেন। তখন ফরহান আলী কে উচ্ছ পদস্থ অফিসারের আদেশ অমান্য করার জন্য তাকে গত, ৫,ই, নভেম্বর মাসের, ২০২০,সালে, তাকে সাসপেন্ড করা হয়। মহম্মদ ফরহান আলী এই আদেশ এর বিরুদ্ধে উত্তর প্রদেশের এলাহাবাদ হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন।

এবং মহম্মদ ফরহান আলীর বিরুদ্ধে গত, ২৮,শে, জুলাই, চারসিট দেওয়া হয় অযোধ্যা পুলিশ সুপার এর নির্দেশে। তার পর আজ উত্তর প্রদেশের পুলিশ কনস্টেবল মহম্মদ ফরহান আলীর রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে রায় দিতে গিয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টের বিচারপতি শ্রী রাজেশ সিঙহ চৌহান জানান যে কি, হিন্দু কি মুসলিম কোন লোক দাড়ি রাখা অবস্থায় পুলিশের ডিউটি করতে পারেন না। সেই সঙ্গে মহম্মদ ফরহান আলীর রিট আবেদন খারিজ করে দিয়ে বলেন যে, একমাত্র যারা পাঞ্জাবি তারা শুধুমাত্র দাড়ি রাখা অবস্থায় পুলিশের ডিউটি আসতে পারে।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *