ভারত থেকে নিউজ দাতা মনোয়ার ইমাম।।

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের তোলা যে অজুহাত ছিল যে ভারতের উত্তর প্রদেশের কাশীর জ্ঞ্যানবাপী মসজিদের নীচে শিবলিঙ্গ আছে এবং ঐ মসজিদ নির্মাণ করা হয়েছে মন্দির ভেঙে তার উপর তৈরি করা হয়েছে কাশীর জ্ঞ্যানবাপী মসজিদ। এই অভিযোগ উত্তর প্রদেশের দায়রা আদালতে মামলা দায়ের করা হয়।

সেই মামলায় নিন্ম আদালতে মুসলিম ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের ধর্মীয় উপাসনালয় থেকে নামাজ আদায় করতে মানা করে। এবং মসজিদের চারিদিকে পুলিশ দিয়ে ঘিরে রাখে সরকার। এই মামলার বিরুদ্ধে ভারতের মুসলিম পারসোনাল ল বোর্ড এবং ভারতের জমিয়তে আলামা হিন্দের সভাপতি জনাব হজরত মাহমুদ মাদানী ভারতের সর্বোচ্চ আদালতে মামলা দায়ের করেন মসজিদের নামাজ আদায় করতে।

সেই রায় দিতে গিয়ে ভারতের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছেন যে এমন কোন নিদর্শন পাওয়া যায়নি যে ওখানে মন্দির ভেঙে মসজিদ তৈরি করা হয়েছে। সেই সঙ্গে আজ থেকে প্রায় ৫০০,শত, বৎসর পূর্বে ভারতের সম্রাট আলমগীর যে মসজিদ তৈরি করতে গিয়ে মন্দির ভেঙে ফেলেছেন এমন ঐতিহাসিক সত্য সামনে আসে নি। তাই এই জ্ঞ্যানবাপী মসজিদের অধিকার ভারতের মুসলমানদের ধর্মীয় উপাসনালয় হিসাবে দেওয়া হল।

অন্যদিকে ভারতের উত্তর প্রদেশের জ্ঞ্যানবাপী মসজিদ নিয়ে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ও বিজেপি কে একহাত নেন উত্তর প্রদেশের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী এবং সমাজবাদী পার্টির নেতা এবং উত্তর প্রদেশের বিধান সভার বিরোধী দলের নেতা শ্রী অখিলেশ যাদব বলেন যে রাতের অন্ধকারে চোরের মতো এসে কিছু দাঙ্গাবাজ উগ্র সাম্প্রদায়িক হিন্দু মানুষের দল দেখে দেখে মুসলিম ধর্মীয় উপাসনালয় সামনে ও পাশে একটি পাথরের নুড়ি তে সিদুর ও হলুদ রঙের কিছু মাখিয়ে মুসলিম ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের ধর্মীয় উপাসনালয় কেড়ে নেবার চেষ্টা করছে তা মানা হবে না।

ঐ সমস্ত মানুষদের রুখতে রাষ্ট্রশক্তির প্রয়োগ করা দরকার। কিন্তু উত্তর প্রদেশের বিজেপির নেতৃত্বে সরকারের মুখ্যমন্ত্রী শ্রী যোগী আদিত্যনাথ তার উল্টো পথে গিয়ে মুসলিম ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের হয়রানি করতে উঠে পড়ে লেগেছে। তাদের বিষয় সম্পত্তি তা বুলডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দিচ্ছে এই বিজেপি সরকার। যার ফলে ভারতের মান সারা বিশ্বের কাছে ছোট হয়ে যাচ্ছে। ভারত ধর্মনিরপেক্ষ দেশ এই দেশের থাকার অধিকার সকলের আছে। উত্তর প্রদেশের জ্ঞ্যানবাপী মসজিদের অধিকার নিয়ে ভারতের বি জে পি বাদে সব বিরোধী দলের নেতৃত্ব ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের পক্ষে সওয়াল করেছেন।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *