মোঃ মাসুদ রানা, রিপোর্টার

মাকে দেয়া কথা রাখতে পারলো না প্রশান্ত। একটি দ্রুতগামী মাইক্রোবাস কেড়ে নিলো তার তরতাজা প্রাণ।

বৃহস্পতিবার (৫ অক্টোবর) রাত ৯ টার দিকে জেলা সদরের পলাশবাড়ী ইউনিয়নের হর্তকিতলা এলাকায় মাইক্রোবাস ও মোটরসাইকেল সাথে এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে৷
নিহত প্রশান্ত রায় জেলা সদরের টুপামারী ইউনিয়নের নিত্যানন্দী গ্রামের মৃত চন্দন রায়ের ছেলে৷

স্থানীয়রা জানায়, নিহত প্রশান্ত রায় ও তার সহযোগী মোশাররফ হোসাইন সহ মোটরসাইকেল যোগে বাসায় ফিরছিলো, পথিমধ্যে হর্তকিতলা এলাকায় একটি ভটভটি (নছিমন) গাড়ীর সাথে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেলসহ রাস্তায় পরে গেলে, ওই সময় পিছন থেকে আসা একটি দ্রুতগামী মাইক্রোহাস তাকে চাপা দিলে, ঘটনাস্থলেই সে মৃত্যু বরণ করে৷

এদিকে, স্থানীয়রা আহত মোশাররফকে (২২) আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে৷ বর্তমানে সে ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীনে রয়েছে৷

নিহত প্রশান্ত রায়ের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, প্রশান্ত রায় পেশায় একজন রাজমিস্ত্রী ছিলেন৷ কাজে যাবার সময় তার মাকে বলেছিলো, কাজ শেষ করেই বাসায় চলে আসবে, কিন্তু সে কথা রাখতে পারলো না প্রশান্ত৷

নীলফামারী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. তানভীরুল ইসলাম মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত। করেছেন৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *