বন্দর দাসের গাও এলাকার ইট ভাটার ব্যবসায়ী মামুন নামের এক যুবক কে দেশীয় হাতিয়ার দিয়ে জখম করেছে কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা জানিয়েছেন পারিবার ।

গত বুধবার সন্ধ্যা ৬.৩০ মিঃ বন্দর চৌরা পাড়া থেকে মামুন তার নিজের ব্যবসার কাজ সেরে বাড়ির উদ্দেশ্য রওনার করে মটর সাইকেল করে সেই সময় পূর্বের থেকে পরিকল্পিত হত্যার উদ্দেশ্য কিশোর গ্যাং প্রথম আক্রমণ করে চৌরা পাড়ায় পরে ওখান থেকে বেচে গেলেও চৌরা পাড়া কবি নজরুল ইসলাম স্কুলের সামনে কিশোর গ্যাং এর দ্বিতীয় গ্রুপ মামুন কে মোটরসাইকেল থামিয়ে পিছন থেকে দেশীয় হাতিয়ার দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্য কুপ দিলে মামুুন মাটিতে পড়ে যায় ঠিক তখনই কিশোর গ্যাং

এর (১) আলাউদ্দিন পিতাঃ মৃত সজল সাং দেউলী, (২) সোহাগ পিতাঃ গোলাপ দেউলী, (৩) ফয়সাল পিতাঃ জসিম সাং দেউলী, (৪) ফরহাদ পিতাঃ মুসলেমউদ্দীন সাং দেউলী, (৫) বাবু মা চম্পা বেগম, (৬) তাইজুল পিতাঃ মৃত আয়নাল সরদার সাং দেউলী সহ আরল ৫/৬ মোট ১২ জন কিশোর গ্যাং এর সন্ত্রাসী দল মানুষকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করেছে। পরে পরিবারে খবর পেয়ে মামুন কে জরুরি ভাবে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য ঢাকার এক প্রাইভেট এপোলো হাসপাতালে আই সি ও তে ভর্তি করিয়ে চিকিৎসা সেবা’য় রেখেছেন বলে জানিয়েছেন মামুনের পরিবার।

এই ঘটনায় মামুনের ভাই বাদী হয়ে বন্দর থানায় অভিযোগ করেন অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করতে দায়িত্ব কারী এস আই হাবিবুর রহমান কে মুঠো ফোনে কল দিলে তাকে না পেয়ে বন্দর থানা অফিসার ইনচার্জ দীপক চন্দ্র সাহ কে মুঠো ফোনে কল দিয়ে কথা বলে যানা গেছে মামুন কে হত্যার উদ্দেশ্য কিশোর গ্যাং যে হামলা করেছে এই ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে আমরা আসামি দের কে ধরার চেষ্টা চালাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *