নিজস্ব সংবাদদাতাঃ
পবিত্র ঈদুল আযহা প্রস্তুতি উদযাপনের লক্ষ্যে জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ মহানগর সাংগঠনিক সদর থানা কর্তৃক আয়োজিত জাকের পার্টির মহামান্য চেয়ারম্যান পীরজাদা আলহাজ্ব খাজা মোস্তফা আমীর ফয়সাল মোজাদ্দেদী ছাহেবের হুকুম মাথায় নিয়ে জাকের পার্টির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগরের সভাপতি মোহাম্মদ মুরাদ হোসেন জামাল এর নেতৃত্বে বিশ্বওলী খাজাবাবা ফরিদপুরী মসজিদ কমপ্লেক্স কালির বাজার চারারগোপ জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর কার্যালয়ে মিশন
সভা অনুষ্ঠিত হয়।

৮ই জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেলে

মিশন সভায় মিশন প্রধান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ জেলার সহ-সভাপতি ও জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সাধারণ সম্পাদক জনাব নাছির আহমেদ নাজ্জুম।
অনুষ্ঠানে মিশন সদস্য হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সহিদ হাসান। মিশন সদস্য হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ মহানগরের যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নুর ইসলাম কালা, জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ মহানগরের অর্থবিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ অলিউল্লাহ অলি, জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ মহানগর সাংগঠনিক সদর থানার সাধারণ সম্পাদক শাহিন আহ্মেদ শাহিন, জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ মহানগর সাংগঠনিক সদর থানার সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ সেলিম মোল্লা।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ জেলার যুগ্ম-সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম ফারুক আলম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ মহানগর সাংগঠনিক সদর থানার সভাপতি একেএম শফিউল আলম। অনুষ্ঠানের শুরুতে কদমবুচি জানিয়ে অনুষ্ঠান শুরু করা হয় অনুষ্ঠানে পবিত্র ঈদুল আযহার গুরুত্ব তাৎপর্য খেজমত ও জাকের পার্টির কর্মকাণ্ড গতিশীল ও শক্তিশালী করার লক্ষ্যে এবং সিপিএইচডি আয়ুর্বেদিক ঔষধ ও সিপিএইচডির কনজুমার প্রোডাক্ট ও সিপিএইচডি ফার্মাসিটিক্যাল লিমিটেডের সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন বক্তারা। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন জাকের পার্টি নারায়ণগঞ্জ মহানগর সাংগঠনিক সদর থানার বিভিন্ন ওয়ার্ডের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক সাংগঠনিক সম্পাদকসহ আরো অনেকেই।
অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলাদেশ কথার প্রকাশক ও সম্পাদক জনাব মোঃ বদিউজ্জামান, সাংবাদিক মাহবুব হোসেন বাবু। অনুষ্ঠানে মিলাদ শরীফ পড়ে মুনাজাত করিয়া বিশ্ববাসীর মঙ্গল কামনা করে দোয়া করা হয়।দোয়া শেষে সবাইকে তবারক খাওয়ানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *