আবদুল্লাহ আল নোমান চট্টগ্রামের পটিয়ায়
চট্টগ্রামের পটিয়ায় পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডে পারিবারিক কলহের জেরে ছেলের গুলিতে জেসমিন আকতার (৫৫) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। তিনি পটিয়া পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান ও জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা সদস্য প্রয়াত শামসুল আলম মাস্টারের স্ত্রী।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) বেলা ২টার দিকে উপজেলা সদরের সবজার পাড়া নিজ বাড়িতে তিনি খুন হন। ঘটনার পরপরই পালিয়ে গেছে অভিযুক্ত ছেলে মাইনুদ্দিন মইনু (৩০)।

পুলিশ জানায়, ঘটনার খবর পেয়ে ওসি তদন্ত রাশেদুল ইসলাম এর নেতৃত্বে একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে ১০টি কার্তুজ ও একটি এয়ারগান জব্দ করে। তবে অভিযুক্ত মইনু পালিয়ে যাওয়ায় ধরা যায়নি। তাকে আটকের জন্য অভিযান চলছে।

স্থানীয়রা জানায়, বাবা শামসুল আলমের রেখে যাওয়া সম্পত্তি ও টাকা পয়সা নিয়ে মায়ের সঙ্গে ঝগড়া লাগে মইনুর। একপর্যায়ে মাকে মাথায় গুলি করে তিনি। পরে প্রতিবেশীরা এসে জেসমিন আকতারকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, পরে চট্টগ্রামে মেডিকেলে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

জানা গেছে, নিহত জেসমিন কিছুদিন পর মেয়ের কাছে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার কথা ছিল। মইনুর সন্দেহ ছিলেন সব সম্পত্তি বিক্রি করে মা বিদেশে পাড়ি দিতে চাচ্ছেন। তার বাবা শামসুল আলম মাস্টার দীর্ঘদিন পৌরসভার চেয়ারম্যানের দায়িত্বে ছিলেন। গতমাসে তিনি মারা যান। তার এক মেয়ে ও দুই ছেলে।
অভিযুক্ত মইনু বখাটে এবং তার নামে কয়েকটি মামলা আছে বলে পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি রেজাউল করিম জানান, অভিযুক্ত মাইনুকে গ্রেফতার করার জন্য অভিযান চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.