ফতুল্লা, নিউ হাজীগঞ্জ ঈদগাহ রোডে উগ্রবাদী স্ত্রী সনিয়া আক্তার রুনা (৪২) কর্তৃক স্বামী মোহাম্মদ আলী লাঞ্ছিত।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায় মোহাম্মদ আলী ২৪ বছর আগে দাম্পত্য জীবন শুরু করেন ১ ছেলে ১ মেয়ে সংসার জীবন ভালোই কাটছিলো তাদের স্ত্রী সন্তানদের সুখের জন্য বিদেশ পারিদেন মোহাম্মদ আলী দীর্ঘ ৭ বছর প্রবাস জীবন পার করলেও ভিটামাটি ছাড়া কোন সম্বলই নেই তার। প্রবাস জীবনই তার কাল হয়ে দাঁড়ালো উগ্রবাদী স্ত্রী সনিয়া আক্তার রুনা বিদেশি টাকা ও অতিরিক্ত বিলাসিতা করাই ছিল তার কাজ। সাংসারিক আধিপত্য বিস্তার করে বিদেশি টাকা দিয়ে দেদারসে ভোগবিলাসী জীবনযাপন করতো উগ্রবাদী নারী সনিয়া আক্তার রুনা,তার মূল উদ্দেশ্য ঘর বাড়ি অর্থ সম্পদ ও স্বর্ন- অলংকার নিজের করে নেওয়া হীনমন্যতা।

মোহাম্মদ আলী আরো বলেন ২৪ বছর আমার সাংসারিক জীবনে একবিন্দুও শান্তি পাইনি সব সময় রাজত্ করতো সংসারে ৭ বছর বিদেশ করে আইছি এসে একটা টাকা ও পাইনি আগের মতোই পথের মানুষ আমি তিনি আরো বলেন গত ২৪ জুন সকাল আনুমানিক ৭ ঘটিকায় সনিয়া আক্তার রুনার হুকুমে ৪/৫ জনের একটি বাহিনী আমার বাসায় এসে আমার রুমের তালা ভেঙে আমাকে মারধর করে নীলা ফুলা যখম করে প্রান নাশের হুমকি দেয়। তাৎক্ষণিকভাবে এলাকাবাসী এসে আমাকে উদ্ধার করে প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা দেন। তাই আমি আমার জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সনিয়া আক্তার রুনা হুকুমদাতা, রোমেল (৩২) মো রাজিব (২৭) উভয় পিতা নাজিমুদ্দিন, রমজান আলী (৪০) পিতা মৃত আছর উদ্দিন সন্ত্রাসী বাহিনীদের বিরুদ্ধে ফতুল্লা থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.