নিজস্ব প্রতিবেদকঃ-

বগুড়ার শেরপুরে রাস্তা থেকে সিএনজিতে যোগে তুলে নিয়ে গিয়ে বাড়ীর ছাদে কিশোরী (১৫) কে ধর্ষণ করার অভিযোগে তিন জনের নামে শেরপুর থানায় একটি মামলা দায়েল করা হয়েছে।
গত (১৫ জুন) মঙ্গলবার দুপুরে মামলা দায়ের করে ভুক্তোভোগি কিশোরীর পালিত বাবা ওসমান আলী। ভুক্তোভোগী কিশোরী শেরপুর পৌরসভার খন্দকার পাড়া এলাকার ওসমান আলী (পালিত বাবা) মেয়ে।
আসামিদের মধ্যে ধুনট থানার এলাঙ্গী পশ্চিমপাড়া এলাকার মৃত বেলায়েত প্রমানিকের ছেলে তারিকুল ইসলাম তারেক (২৫), নলডাঙ্গা পশ্চিমপাড়া গ্রামের বাবুল মন্ডলের ছেলে ওয়াসিম মন্ডল (২৫) গ্রেফতার করে। এবং পুরাতন পল্লী বিদ্যুতে অফিস এলাকার আব্দুস সামাদের ছেলে রানা মিয়া (২৫) পলাতক রয়েছে।
মামলা সূত্রে জানাযায়, তরিকুল ইসলাম তারেক সাথে ১ মাস আগে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কিশোরীর পরিচয় হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গত (১৩ জুন) রবিবার তারেক দেখা করার কথা বলে কিশোরীকে। পরে কিশোরীর বাড়ীর পার্শ্বে প্রোগ্রেসিভ স্কুলের নিকট দেখা করতে আসলে তরিকুল ইসলাম তারেক ও ওয়াসিম অজ্ঞাতনামা সিএনজিতে জোড় করে তুলে নিয়ে যায়। এবং ধুনট হাসপাতাল রোডে পুরাতন বিদ্যুৎ অফিসে আসামি রানাদের বাড়ীর ছাদে নিয়ে গিয়ে তারেক ধর্ষণ করে কিশোরীকে মোটরসাইকেলে যোগে শালফা ব্রিজের নামিয়ে দিয়ে যায়।
পরে কিশেরী বাসায় এসে বিষয়টি বাবা-মাকে বলে, বাবা ওসমান আলী থানায় এসে অভিযোগ করলে শেরপুর থানার এস,আই তন্ময় কুমার সঙ্গীয় ফোর্সসহ গত (১৪ জুন) সোমবার ধুনট উপজেলায় অভিযান চালিয়ে তারেক ও ওয়াসিমকে গ্রেফতার করে।
এ বিষয়ে শেরপুর থানার এস,আই তন্ময় কুমার জানান, ধর্ষণের অভিযোগে (১৫ জুন) মঙ্গলবার দুপুরে মামলা করা হয়। মামলা নং ১৭। এছাড়া দুই জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরেক আসামিকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *