আনোয়ার হোসেন আকাশ,
রাণীশংকৈল(ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধি:

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার দুওসুও ইউনিয়নের মহিষমারী গ্রামের জুনায়েদ হাসান মাহিন (৫) ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ধুকে ধুকে মৃত্যুর দিকে হাঁটছেন। গেল এক বছরের বেশি সময়ে বাবা ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, রংপুর ও ঢাকার বিভিন্ন স্থানে ছেলের চিকিৎসা করিয়ে আর্থিক ভাবে সর্বশান্ত হয়েছেন।

ব্লাড ক্যান্সার আক্রান্ত শিশু মাহিনকে বাঁচাতে দরিদ্র পিতার আকুতি সমাজের সমাজের সহৃদয় বিত্তবান মানুষদের কাছে।

গত বছরের শুরুতে জুনায়েদ হাসান মাহিন নামে চার বছরের শিশুর পায়ের ব্যথা শুরু হলে স্থানীয় চিকিৎসকের স্মরণাপন্ন হন বাবা। চিকিৎসা চলাকালীন সময়ে পা ব্যথার পাশাপাশি বাড়তে থাকে শরীরের রক্তের চলাচলের সমস্যা। সারা শরীর জুড়ে কালো কালো আকারের দাগ দেখা দেওয়া শুরু হয়। বড় হতে থাকে পেট।
বাবা কামরুল হাসান পরীক্ষা নীরিক্ষার পর জানতে পারেন প্রাণের চেয়ে প্রিয় ছেলের ব্লাড ক্যান্সার হয়েছে। আকাশ ভেঙ্গে পড়ে মাথায়।

মাহিনকে বাঁচাতে প্রায় ১২ লক্ষাধিক টাকার প্রয়োজন। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী দেশের বাহিরে নিয়ে গিয়ে উন্নত চিকিৎসা করালে তাকে বাঁচানো সম্ভব। ছেলেকে বাঁচাতে এত টাকা জোগাড় করা সম্ভব নয় বাবার পক্ষে। তাই নিরুপায় হয়ে ছেলেকে বাঁচাতে আর্থিক সহায়তা চান বাবা কামরুল হাসান।

সোমবার মাহিনের বাড়ীতে গিয়ে দেখা গেছে, ঠোঁট দিয়ে রক্ত ঝরছে মাহিনের। মা বিউটি আক্তার পা চেপে দিচ্ছেন ছেলের। ছেলের এমন পরিনতি দেখে নিজেই আধমরা হয়ে গেছেন তিনি।

মা বিউটি আক্তার জানান, প্রতি সপ্তাহে দুবার শরীরে রক্ত দিতে হচ্ছে মাহিনের। রক্ত দেওয়া বন্ধ হলেই ব্যথা বেড়ে যাচ্ছে পা সহ সারা শরীরের। রক্ত নষ্ট হয়ে পায়ুপথ দিয়ে বের হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, মাহিনের বাবা কামরুল হাসান জয়পুর হাটের একটি ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন বাবুর্চি পদে কর্মরত আছেন। বেতনের টাকা দিয়ে সংসার পরিচালনা ও ছেলের চিকিৎসায় খরচ করছেন। ইতিমধ্যে ঋণ নিয়েও ছেলের চিকিৎসার জন্য ব্যয় করেছেন।

মাহিনের বাবা কামরুল হাসান জানান, ঢাকায় চিকিৎসার পর অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠেছিল মাহিন। গত তিন মাস ধরে আর্থিক সংকটের কারণে পুরো চিকিৎসা চালিয়ে নিতে পারিনি। আবার অবস্থা খারাপের দিকে যাচ্ছে। ছেলেকে বাঁচাতে চায়। কিন্তু সামর্থ নেই। মানবিক দিক বিবেচনা করে যদি সম্ভব হয় আমার ছেলেকে বাঁচাতে আমাকে সহযোগিতা করুন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) যোবায়ের হোসেন জানান, উপজেলা সমাজসেবা থেকে চিকিৎসার আর্থিক সহযোগিতা পেতে তাঁর বাবাকে সব ধরণের সহযোগিতা করা হবে। পাশাপাশি সমাজের বৃত্তবান ব্যক্তিদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

মাহিনকে সহযোগিতা করতে চাইলে তাঁর বাবার রুপালি ব্যাংক বালিয়াডাঙ্গী শাখার সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর ৪৫৮০০১০০২৩২৮৮ অথবা বিকাশ ০১৭৮৯৬৮২৩৯৭ (মাহিনের বাবা কামরুল হাসান)) নম্বরে সহযোগিতা করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *