আনোয়ার হোসেন আকাশ,
রাণীশংকৈল(ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধি:

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় শুক্রবার (১১জুন) সকালে নেকমরদ ইউপির করনাইট কুমোরগঞ্জ গ্রামের সানির পুকুর পাড়ের একটি আম গাছ থেকে নববিবাহিত যুবকের লাশ উদ্বার করেছে রাণীশংকৈল থানা পুলিশ।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, নিহত যুবক ঐ গ্রামে গত বৃহস্পতিবার (১০জুন) বিকালে তার সদ্য বিবাহিত স্ত্রীকে সাথে নিয়ে শশুর বাড়িতে বেড়াতে আসেন।
নিহত যুবক হলেন রানীশংকৈল উপজেলার দৃর্লভপুর বড়পুকুর গ্রামের জাহেরুল ইসলামের ছেলে আসাদ (২২)।

শ্বশুরবাড়ীতে নববিবাহিত জামাইয়ের ফাঁস দিয়ে মৃত্যুর খবর ছরিয় পড়লে এলাকার মানুষের মাঝে জল্পনা কল্পনা সৃষ্টি হয়।

স্থানীয় ও থানা সুত্রে জানা যায়, উপজেলার করনাইট কুমারগঞ্জ গ্রামের জাহেরুল ইসলামের মেয়ে জুই আক্তারের (১৮) সাথে গত ২৯ মে পারিবারিক ভাবে বিয়ে সম্পন্ন হয় দৃর্লভপুর বড়পুকর গ্রামের জাহেরুল ইসলামের ছেলে আসাদের। বিয়ের পর শ্বশুর বাড়ীতে বেড়াতে এসে বাড়ির পাশে একটি আম গাছে ফাঁস দিয়ে জামাইয়ের মারা যাওয়ার বিষয়টি রহস্যজনক মনে করছেন এলাকাবাসী।

প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদের জন্য শ্বশুর জাহেরুল (৪০) শ্বাশুড়ি মেরিনা (৩৪) স্ত্রী জুই আক্তার (১৯) ও শ্যালক মিলন (১৫) কে থানা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।
নিহতের খালাতো ভাই শাহাজত বাদী হয়ে থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করেছেন।

এবিষয়ে থানা পরিদর্শক (ওসি) এস এম জাহিদ ইকবাল শুশুরবাড়ী বেড়াতে এসে জামাই এর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে
প্রাথমিক সুরতহাল তৈরী করা হয়েছে। লাশের ময়নাতদন্ত করা হবে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন হাতে পেলেই মৃত্যুর মূল কারণ উদঘাটন হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *