আনোয়ার হোসেন আকাশ,
রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধি:

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার তোররা হাফিজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে নিয়োগ বিধি অনুসরণ না করে অর্থের বিনিময়ে ও অনিয়ম করে পক্ষের লোকজনকে নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। গত মঙ্গলবার (২ আগষ্ট) দুপুরে সচেতন এলাকাবাসী সংঘবদ্ধ হয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও সভাপতিকে অবৈধ নিয়োগ বাতিল করে বৈধ ভাবে নিয়োগের জন্য দাবী জানান।

ঐ স্কুলের শিক্ষার্থীর অভিভাবক বাবুল ইসলাম বলেন, সম্প্রতি অত্র বিদ্যালয়ে, ১জন অফিস সহায়ক, ১ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মী, ১জন আয়া ও ১জন নৈশ প্রহরী পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। যেখানে অর্থের বিনিময়ে পক্ষের লোকজনকে নিয়োগ দিয়েছেন প্রধান শিক্ষক জমশেদ আলী ও স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আলী আকবর।

অভিযোগ কারী আব্দুস সোবহান বলেন, এলাকায় যেসব পত্রিকা নিয়মিত আসে না, ঐঈেলসব পত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রকাশ করে তথ্য গোপন রেখে এই নিয়োগকে বৈধতা দেওয়ার চেষ্টা করেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি বলেন, প্রতিষ্ঠানের সম্মান ক্ষুন্ন করে হীন স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য অনিয়ম করে কৌশলে নিয়োগ দেওয়ার পায়তারা করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট শিক্ষা অধিদপ্তর কর্মকর্তাদের তদন্ত পূর্বক এই নিয়োগ বাণিজ্য বাতিল করে সুষ্ঠু নিয়মে নিয়োগ দিয়ে প্রতিষ্ঠানের সুনাম অক্ষুণ্ণ রাখার দাবী জানান এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে এলাকাবাসী আরো বলেন, এই নিয়োগের জন্যই গত ৪মাস আগে নিজ পক্ষের লোকজন দিয়ে গোপনে ম্যানেজিং কমিটি গঠন করেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক। ম্যানেজিং কমিটির বিষয়ে জানতে পারলে ক্ষিপ্ত হয়ে আইনের আশ্রয় নেয় এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে তোররা হাফেজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জমশেদ আলী বলেন, আমি বৈধ ভাবেই নিয়োগ দিয়েছি। ম্যানেজিং কমিটির সাথে স্কুলের সভা কক্ষে বৈঠক করে স্থানীয় ও জাতীয় প্রত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের মধ্য দিয়ে বৈধ ভাবে নিয়োগ প্রক্রিয়া চুড়ান্ত করা হয়েছে।

হরিপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রায়হানুল মিঞা বলেন, আমি তোররা হাফিজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে কোন অভিযোগ পায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.